মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ১০:০৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
টাকা দিলেই পরিবেশ অধিদপ্তরের কুমিল্লা কার্যালয় থেকে মিলছে যেকোনো ধরনের ছাড়পত্র।। কালের খবর বাঘারপাড়ায় কোভিড-১৯ এর(গন টিকা) বিষয়ক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর সখীপুরে স্ত্রীর অধিকার আদায়ে স্বামীর বাড়িতে এক নারীর অনশন। কালের খবর নবীনগরের শাহবাজপুরে মায়ের সাথে অপকর্ম করতে গিয়ে ছেলের হাতে ধরা পড়ল ইউপি সদস্য! কালের খবর পণ্য নয়-কাভার্ড ভ্যানে ছিল যাত্রী, অভিযান চালাল সীতাকুণ্ড ইউএনও। কালের খবর মানবতার টানে রাতের আঁধারে ও ছুটে চলেছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের নেতা আলামিনুল হক। কালের খবর শোক সংবাদ : হাজী শামসুল হক চেয়ারম্যান আর নেই। কালের খবর কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে সীমান্তে ৭ বাংলাদেশী আটক। কালের খবর তাড়াশে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ সহায়তা পেল করোনায় আক্রান্ত এক অসহায় পরিবার। কালের খবর নবীনগরে মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ লঙ্ঘন করায় মোবাইল কোর্টে জরিমানা! কালের খবর
চবিতে ছাত্রলীগ ভেঙ্গে দিল খালেদা জিয়া হলের নাম ফলক। কালের খবর

চবিতে ছাত্রলীগ ভেঙ্গে দিল খালেদা জিয়া হলের নাম ফলক। কালের খবর

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, কালের খবর :
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রীদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আবাসিক হলের নাম ফলক ভেঙ্গে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। এ সময় ছাত্রলীগ ‘বীর প্রতীক তারামন বিবি’র নামে হলটির নামকরণ করার দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে।

মঙ্গলবার বিকাল তিনটায় হল সড়কে খালেদার জিয়ার হলের নাম ফলক নির্দেশিকা মুছে দেয় এবং হলের সম্মুখে স্টিলের দেয়া নাম ফলক ভেঙ্গে ফেলে তারা।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের অভিযোগ, আদালত কর্তৃক এতিমদের অর্থ আত্মসাৎকারী দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও জঙ্গি মাতা এবং যার মদদে একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা সংগঠিত হয়েছিল এমন ব্যক্তির নামে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মত বিদ্যাপিঠে কোন স্থাপনা থাকতে পারে না। এটা বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের জন্য লজ্জাজনক। তাই ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের কাছে এই স্থাপনার নাম পরিবর্তনের জন্য জোর দাবি জানান। একই সঙ্গে এ সময় ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধে অবদানকারী বাঙালি জাতীয়তাবাদ আদর্শে বিশ্বাসী জাতির শ্রেষ্ট সন্তান ‘বীর প্রতীক তারা বিবির নামে হলটির নামকরণ করার দাবি জানান।

নাম ফলক ভেঙ্গে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি মো. মনছুর আলম, সহ সভাপতি আবদুল মালেক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আবু তোরাব পরশ, উপ দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুল ও শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক আমীর সোহেল প্রমুখ নেতা-কর্মীরা।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘এভাবে মুখে মুখে বললেই হলের নাম পরিবর্তন হয়ে যায় না। ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি পেশ করলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবে। ’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com