শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজস্ব আহরনে সবাই সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি : প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর খেলাধুলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ভাবে পরিচিতি লাভ করা যায় – স্মৃতি। কালের খবর মুরাদনগরে চলছে ফসলি জমির মাটি কাটার মহা-উৎসব। কালের খবর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুদের কারবারির হাতে ওষুধ ব্যবসায়ী খুন! কালের খবর প্রেসক্লাব বাসুন্দিয়ার (৫ম) প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত। কালের খবর সাংবাদিক শিমুল হত্যার ৬ বছর : শুরু হয়নি বিচারকার্য। কালের খবর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আনন্দমুখর পরিবেশে প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু। কালের খবর শাহজালালে সাড়ে ১৩ কোটি টাকার স্বর্ণসহ এয়ারলাইন্সের চালক আটক। কালের খবর নবীনগরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডি জি এম এর অপসারণের দাবিতে সাংবাদিক সমাজের মানববন্ধন। কালের খবর চট্রগ্রামের পতেঙ্গায় ৯ লক্ষ টাকার বিয়ারসহ দুই মাদক কারবারি আটক। কালের খবর
চবিতে ছাত্রলীগ ভেঙ্গে দিল খালেদা জিয়া হলের নাম ফলক। কালের খবর

চবিতে ছাত্রলীগ ভেঙ্গে দিল খালেদা জিয়া হলের নাম ফলক। কালের খবর

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, কালের খবর :
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রীদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আবাসিক হলের নাম ফলক ভেঙ্গে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। এ সময় ছাত্রলীগ ‘বীর প্রতীক তারামন বিবি’র নামে হলটির নামকরণ করার দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে।

মঙ্গলবার বিকাল তিনটায় হল সড়কে খালেদার জিয়ার হলের নাম ফলক নির্দেশিকা মুছে দেয় এবং হলের সম্মুখে স্টিলের দেয়া নাম ফলক ভেঙ্গে ফেলে তারা।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের অভিযোগ, আদালত কর্তৃক এতিমদের অর্থ আত্মসাৎকারী দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও জঙ্গি মাতা এবং যার মদদে একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা সংগঠিত হয়েছিল এমন ব্যক্তির নামে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মত বিদ্যাপিঠে কোন স্থাপনা থাকতে পারে না। এটা বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের জন্য লজ্জাজনক। তাই ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের কাছে এই স্থাপনার নাম পরিবর্তনের জন্য জোর দাবি জানান। একই সঙ্গে এ সময় ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধে অবদানকারী বাঙালি জাতীয়তাবাদ আদর্শে বিশ্বাসী জাতির শ্রেষ্ট সন্তান ‘বীর প্রতীক তারা বিবির নামে হলটির নামকরণ করার দাবি জানান।

নাম ফলক ভেঙ্গে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি মো. মনছুর আলম, সহ সভাপতি আবদুল মালেক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আবু তোরাব পরশ, উপ দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুল ও শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক আমীর সোহেল প্রমুখ নেতা-কর্মীরা।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘এভাবে মুখে মুখে বললেই হলের নাম পরিবর্তন হয়ে যায় না। ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি পেশ করলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবে। ’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com