রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত। কালের খবর ঘিওরে কৃষকদের মানববন্ধনে নিয়মিত বর্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের জোরালো দাবি। কালের খবর বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই চট্টগ্রামের অভূতপূর্ব উন্নয়ন : খোরশেদ আলম সুজন। কালের খবর “ইন্টারন্যাশনাল প্রেস ক্লাব এন্ড হিউম্যান রাইটস” এর কেন্দ্রীয় কমিটির চূড়ান্ত প্রার্থিতা গ্রহণ। কালের খবর জগন্নাথপুরে প্রাথমিক শিক্ষক মদপান করে সাজা ভোগ করায় এলাকায় ক্ষোভ। কালের খবর ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতারা অসন্তোষ। কালের খবর হাইকোর্টের রায় : মোটরযানে বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ। কালের খবর অবশেষে চালু হচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত হাট, তাজা মাছের চাহিদা ভারতের। কালের খবর
শিক্ষক আব্দুর রহিমকে অপসারণের অভিযোগ। কালের খবর

শিক্ষক আব্দুর রহিমকে অপসারণের অভিযোগ। কালের খবর

 

স্টাফ রিপোর্টার, কালের খবর : 
মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে সহকারী শিক্ষক মো: আব্দুর রহিমকে অপসারণের পায়তারা করছে একটি কুচক্রি মহল। এমন অভিযোগ করেছেন ওই শিক্ষক নিজেই। ঘটনাটি সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের চাঁদনীমুখা পরিজ্ঞান আলিম মাদ্রাসায়। এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড রেজিস্টার, চেয়ারম্যান ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের নিকট আবেদন করেছেন তিনি। ভুক্তভুগি সহকারী শিক্ষক মো: আব্দুর রহিম অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চাঁদনীমুখা পরিজান আলিম মাদ্রাসার সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক মো: আব্দুর রহিম ২০০৩ সালে নিয়োগ প্রাপ্ত হয়ে সুনামের সহিত শিক্ষকতা করে আসছেন। বিএনপি সমর্থিত গাবুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিএম মাসুদুল আলমের সাথে ভুল বুঝাবুঝির খেসারত হিসাবে গত ২২ জুন ২০২২ তারিখ হতে মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিমকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। উক্ত মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা জিএম মাসুদুল আলমের চাচাত ভাই।
আবেদনে জানা যায়, সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিম নিয়ম অনুযায়ী নিয়মিত মাদ্রাসায় হাজির হন এবং হাজিরা রেজিস্টারে স্বাক্ষর করেন। প্রায় এক বছর তার সাময়িক বরখাস্ত প্রত্যাহার না করায় উক্ত শিক্ষক তার বরখাস্ত আদেশ প্রত্যাহার চেয়ে মহামান্য হাইকোর্টে রিট পিটিশন করেন যার নং ৩৩৩৫/২৩। গত ২৮ মার্চ ২০২৩ তারিখ হাইকোর্ট শুনানির দিন ধার্য করেন। শুনানি অন্তে মহামান্য হাইকোর্ট উক্ত মাদ্রাসার গভনিং বডি কর্তৃক সাময়িক বরখাস্ত আদেশটি স্থগিত করেন। মহামান্য হাইকোর্টের আদেশের কপি গর্ভনিং বডির নিকট প্রদান করার পর থেকে উক্ত সহকারী শিক্ষক মো: আব্দুর রহিমকে মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো: সাইফুল ইসলাম হাজিরা রেজিস্টারে স্বাক্ষর করতে দেন না কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন গর্ভনিং বডির নির্দেশ আছে আপনাকে হাজিরা রেজিস্টারে স্বাক্ষর করতে দিবে না। শুধু তাই নয়, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হাজিরা রেজিস্টার তার হাত থেকে জোর পূর্বক কেড়ে নেয়। এ বিষয়ে উক্ত সহকারী শিক্ষক মো: আব্দুর রহিম শ্যামনগর থানায় সাধারণ ডায়রী করেন যার নং ১১৮৬ তারিখ ২১ জুলাই। ২০২৩ । মহামান্য হাইকোর্টের আদেশের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জানান বিএনপির দোষর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ সাইফুল ইসলাম ও ইউপি চেয়ারম্যান জিএম মাহমুদুল আলম সাময়িক বরখাস্ত স্থগিত না করে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের পাঁয়তারা করছে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com