শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
যৌথ বাহিনীর অভিযান: থানচি-রুমা-রোয়াংছড়ি ভ্রমণে বারণ সাতক্ষীরার দেবহাটায় ইউপি চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি সহ আহত পাঁচ। কালের খবর সাপাহারে রাতের অন্ধকারে ফলন্ত আম গাছ কাটল দূর্বৃত্তরা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় হাঙ্গার প্রজেক্টের সামাজিক সম্প্রীতি কমিটির সাথে উপজেলা নির্বাহী অফিসার’র মতবিনিময়। কালের খবর রায়পুরায় মরহুম ডাঃরোস্তাম আলীর ২৭ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে ইফতার ও দোয়া মাহফিল। কালের খবর ভাতৃত্ববোধ সুদৃঢ় করতে রায়পুরাতে দোয়া ও ইফতার। কালের খবর রিয়াদে বাংলাদেশ প্রবাসী সাংবাদিক ফোরামের ইফতার মাহফিলে প্রবাসীদের মিলন মেলা। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে স্বাধীনতা দিবসে গুনীজনদের আলোচনা সভা সম্পন্ন। কালের খবর আরজেএফ’র উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল সম্পন্ন। কালের খবর সাতক্ষীরার সুন্দরবন রেঞ্জে ২৪ জন হরিন শিকারীর আত্মসমর্পণ। কালের খবর
আমলাপাড়ার সেই ময়লার স্তুপ এখনও সরানো হয়নি। কালের খবর

আমলাপাড়ার সেই ময়লার স্তুপ এখনও সরানো হয়নি। কালের খবর

কালের খবর ডেস্ক : গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আমলাপাড়া আদর্শ শিশু সরকারি বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থী সংবধনা অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের পাসে খোলা ডাস্টবিনের দুর্গন্ধ নিয়ে যাতায়াত করতে শিক্ষার্থীদের সমস্যা কথা তুলে ধরেন এমপি সেলিম ওসমানের কাছে। বক্তব্যে সেলিম ওসমান স্থানীয় ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে এবিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ জানান।

সাংসদের অনুরোধের ২৪ ঘন্টা না যেতেই কাউন্সিলর খোরশেদ আমলাপাড়ার সেই ময়লার স্তুপ সরানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেন। সেখানে পরিচ্ছন্নতা কর্মীরাও কাজ করেন। তবে এখন ঘটনার উল্টো চিত্র।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তায় এখনো ময়লার দুটি বড় স্তুপ পড়ে রয়েছেন। গত কয়েকদিন বৃষ্টি হওয়ায় এ সমস্যা আরো প্রকট আকার ধারণ করেছে। রাস্তা দিয়ে দুর্গন্ধে হাটতে পারছেনা যাতায়াতকারী মানুষ।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, এই হলো আমাদের অবস্থা। নেতারা নানা প্রতিশ্রুতি দেন আদতে সেগুলোর বাস্তবায়ন কতখানি হয় সেগুলোর খোঁজখবর আর তারা রাখেননা। এই ময়লার স্তুপগুলোই তাঁর বাস্তব প্রমাণ।

মতিন মিয়া নামের এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, এই ময়লার স্তুপ সরানোর ব্যাপারে আমরা আর কি বলবো। এখানকার ময়লা শুধু এই এলাকার মানুষই ফেলেননা। অন্য জায়গা থেকেও নানাজনে এখানে ময়লা ফেলে যান। ভুক্তভুগী তো আমরা এলাকাবাসী।

এব্যাপারে ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খোরশেদ বলেন, ‘সাংসদ বলার পর আমি সরেজমিনে গিয়ে সেখান থেকে ময়লা সরানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করি। আমি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলাম অসচেতন কিছু মানুষের কারণে এখানে আবারও ময়লার স্তুপ তৈরি হবে।

সপ্তাহ না যেতেই আমার আশঙ্কাই সত্যিই হলো। জায়গাটিতে এখনো দেয়াল নির্মাণের কাজ শেষ হয়নি। সেটি সম্পন্ন হয়ে গেলে এবং মানুষ সচেতন হলে আশা করি অবস্থার উন্নতি হবে।’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com