রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব শ্রীপুর উপজেলা শাখার কমিটি গঠন। কালের খবর মসজিদগুলোতে প্রবেশে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ রাজধানীর প্রবেশপথে সর্তক ৩ থানা পুলিশ। কালের খবর “পোরশা” পুরইল এ মসজিদের শুভ উদ্বোধন। কালের খবর শাহজাদপুরে বাঁশের সাঁকোয় ১০ গ্রামের ৫০ হাজার মানুষের ঝূঁকিপূর্ণ চলাচল। কালের খবর তালতলীতে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ, অভিযুক্ত গ্রেফতার। কালের খবর “পোরশা “ধুলাডাঙ্গা গ্রামে খড়ের পালায় আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। কালের খবর মানুষের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সী। কালের খবর ভূরুঙ্গামারীর মেয়ে উত্তীর্ণ হলেন মেডিকেলে, চিন্তার ভাঁজ হকার বাবার কপালে। কালের খবর সীতাকুণ্ডে সম্মাননা পেলেন নারী নেত্রী সুরাইয়া বাকের। কালের খবর শ্রীপুরে লিচুর মধু সংগ্রহসহ লিচুর উৎপাদনও বাড়ছে। কালের খবর
লালমনিরহাট আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস দালালদের হাতে জিম্মি, হয়রানীর শিকার পাসপোর্ট প্রার্থীরা। কালের খবর

লালমনিরহাট আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস দালালদের হাতে জিম্মি, হয়রানীর শিকার পাসপোর্ট প্রার্থীরা। কালের খবর

লালমনিরহাট প্রতিনিধি, কালের খবর :
লালমনিরহাট আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসটি দালালদের হাতে জিম্মি, হচ্ছে পাসপোর্ট প্রার্থীরা হয়রানীর শিকার। অভিযোগে জানা গেছে,লালমনিরহাটে ২০১৩ সালে স্টেডিয়াম রোড সংলগ্ন আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসটি হওয়ার পর থেকেই স্থানীয় শাহ-আলম সহ দালাল চক্রের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে পাসপোর্ট প্রার্থীরা।

সরেজমিনে গেলে মাইদুল ইসলাম সহ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পাসপোর্ট প্রার্থীরা জানান,ফরম জমাদানের সময় মাসুদ নামের একজন কর্মচারি বিভিন্ন তথ্য ভূলের অযুহাত দেখিয়ে প্রতি ফরমে ১ হাজার থেকে ১২’শত টাকা উৎকোচ দিতে হয়।ঐ পাসপোর্ট অফিসের কর্মচারীকে উৎকোচের টাকা না দিলে পাসপোর্ট প্রার্থীরা হয়রানির শিকার হয় মর্মে সোমবার সাংবাদিকদের জানান। এ উৎকোচের টাকা গ্রহনকারী হিসেবে স্থানীয় শাহ আলম গং নামের দালাল নিয়োগ করা রয়েছে বলে একাধিক ব্যাক্তি জানান।

পাসপোর্ট অফিস আঞ্চলিক কার্যালয় লালমনিরহাটের উপ-সহকারী পরিচালক এ কে এম মোতাহার হোসেন জানান, ২০১৮ ও ২০১৯ ইং সালের ফেব্রুয়ারী মাস পর্যন্ত ৭ হাজার ১শত ৯ জন পাসপোর্ট করেছে।আর তথ্য গোপন করায় প্রায় ২৫০ জনের পাসপোর্ট আটকা পড়েছে।মিথ্যা তথ্য দানকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেয়ার কথা থাকলেও পাসপোর্ট অফিসের ক্ষেত্রে আইনের কোনো প্রয়োগ নেই বলে সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তা মন্তব্য করেন।

তবে অভিযোগে জানা যায়,পাসপোর্ট অফিসটি লালমনিরহাটে স্থাপিত হওয়ার পর থেকে কতিপয় দালালচক্র সরকারি ফি বাবদ অতিরিক্ত উৎকোচ নিয়ে অফিসটি দালালদের হাতে জিম্মি দশায় পরিণত করেছে। সূত্র জানান, সাধারন পাসপোর্ট ফি ৩ হাজার ৪শত ও আর্জেন্ট পাসপোর্ট ফি ৬ হাজার ৯ শত টাকা সরকারী ফি বাদে অতিরিক্ত উৎকোচ দিতে হচ্ছে পাসপোর্ট প্রার্থীদের।

এমন ঘুষ দুর্নীতির ব্যাপারে উপ সহকারী পরিচালক এ কে এম মোতাহার হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন। এমতাবস্থায় সাধারন জনগন দূর্নীতি দমন কমিশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com