রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৪:১০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত। কালের খবর ঘিওরে কৃষকদের মানববন্ধনে নিয়মিত বর্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের জোরালো দাবি। কালের খবর বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই চট্টগ্রামের অভূতপূর্ব উন্নয়ন : খোরশেদ আলম সুজন। কালের খবর “ইন্টারন্যাশনাল প্রেস ক্লাব এন্ড হিউম্যান রাইটস” এর কেন্দ্রীয় কমিটির চূড়ান্ত প্রার্থিতা গ্রহণ। কালের খবর জগন্নাথপুরে প্রাথমিক শিক্ষক মদপান করে সাজা ভোগ করায় এলাকায় ক্ষোভ। কালের খবর ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতারা অসন্তোষ। কালের খবর হাইকোর্টের রায় : মোটরযানে বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ। কালের খবর
মাছ-মাংস ও সবজির বাজারে আগুন সাধারন ক্রেতারা হতাস। কালের খবর

মাছ-মাংস ও সবজির বাজারে আগুন সাধারন ক্রেতারা হতাস। কালের খবর

মোঃ মুন্না হুসাইন তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি, কালের খবর : কয়েক মাস ধরে তাড়াশ উপজেলায় বাজারে চড়া মূল্যে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। এখনও বাজারে ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি পাওয়া যায়নি।

গতকাল উপজেলার বিভিন্ন কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সবজির দাম এখনও কমেনি। বরং কিছু কিছু সবজির দাম আরও বেড়েছে। এ নিয়ে বাজার করতে আসা সাধারণ ক্রেতাদের হতাশা প্রকাশ করতে দেখা গেছে। বিক্রেতারা বলছে, শীতের নতুন সবজি বাজারে আসার আগ পর্যন্ত দাম এমন বাড়তিই থাকবে সব ধরনের সবজির।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বরবটি প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, কোনো কোনো বাজারে মানভেদে বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকাতেও, বেগুন প্রতি কেজি ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, করলা ৫০ টাকায়, সিম প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৮০ টাকায়, শসা ৪০ টাকায়, পটল প্রতি কেজি ৫০ টাকায়, কাঁচা মরিচ ১২০ টাকায়, টমেটো প্রতি কেজি ১০০টাকায়, মূলা ৪০ টাকায়, ঝিঙ্গা ৫০ থেকে ৬০ টাকায়, ঢেঁড়স ৫৫ টাকায়, কাঁচা কলা প্রতি হালি ৪০ টাকায়, গাজর প্রতি কেজি ১০০ লাউ প্রতি পিস ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়া কাটা এক ফালি ৩০ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলায় মান্নান নগর কাঁচা বাজারে আসা ক্রেতা মুন্না হোসেন বলেন, আজ প্রায় তিন মাস ধরে অতিরিক্ত দামে সবজি কিনে খেতে খাচ্ছি। মাছ-মাংস নিত্যপণ্যের কথা না হয় বাদই দিলাম, কিন্তু যে সবজি খেয়ে কোনো মতে আমাদের টিকে থাকার কথা, সেই সবজির বাজারে আগুন লেগে আছে। বরবটি কিনলাম ৬০ টাকা কেজিতে। এমন কোনো সবজি নেই বাজারে যার দাম ৫০ টাকার নিচে। আমাদের মতো নিম্নআয়ের মানুষের আলু আর পেঁপে ছাড়া অন্য সবজি কেনার ক্ষমতা চলে যাচ্ছে।

উপজেলার হাটি কুমরুল হাইওয়ে রোড সংলগ্ন মহিষলুটি একটি কাঁচা বাজারের সবজি বিক্রেতা সোরহাপ উদ্দিন বলেন, শীতের নতুন সবজি ওঠার আগ পর্যন্ত সবজির দাম এমন বেশিই থাকবে। খেতের শেষ ফসল এগুলো, তাই চাহিদার তুলনায় মালের ঘাটতি আছে। আমাদের সিরাজগঞ্জ সদর বাজার থেকে মাল কেনার সময় সব ধরনের সবজি বাড়তি দামে কিনতে হচ্ছে। আগে কখনো আমরা এত বেশি দামে সবজি কিনিনি। কেনার পর নানা ধরনের খরচ রয়েছে বাজারে। সবমিলিয়ে আমরা এসে যখন খুচরা দামে সবজি বিক্রি করছি তখন এ দামটা আরও বেড়ে যাচ্ছে। আজও সবকিছুর চড়া বাজার। এর মধ্যে আজ বরবটির দাম বেড়েছে। আজ আমরা প্রতি কেজি বরবটি বিক্রি করছি ৬০ টাকায়।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com