বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০১:৩৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নড়বড়ে সাঁকোতে হাজারও মানুষের পারাপার তাড়াশ উপজেলার গ্রামগুলোতে বিদ্যুতের লোডশেডিং ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। বাংলাদেশী তৈরি টুটু পিস্তল, চাইনিজ কুড়াল ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ কিশোর গ্যাং এর ৪ সদস্য গ্রেফতার। কালের খবর যুবদলের দোষ আওয়ামী লীগের উপর চাপিয়ে বিবৃতির প্রতিবাদ। কালেন খবর সালিশে চুলের মুঠি ধরে মহিলাকে প্রকাশ্যে মারধর ভিডিও ভাইরাল ডিইউজে(একাংশ) সভায় নারী সাংবাদিককে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ। কালের খবর নবীনগরের সলিমগঞ্জে অবৈধ স্বর্ণ বেচাকেনার বৈধ হাট । কালের খবর প্রায় ৩ বছর পর মোরেলগঞ্জে উপজেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন। কালের খবর আখাউড়ায় আইনমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে ঝাড়ু মিছিল। কালের খবর বোয়ালমারীতে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত আনিসুজ্জামানের মতবিনিময়। কালের খবর
ই- কমার্স কোম্পানি গুলোর প্রতারণা — হতাশায় গ্রাহকগন! কালের খবর

ই- কমার্স কোম্পানি গুলোর প্রতারণা — হতাশায় গ্রাহকগন! কালের খবর

সাঈদ ইবনে হানিফ,  কালের খবর : – বর্তমান সময়ে( ই-কমার্স’) প্রতিষ্টান গুলোকে এ প্রজন্মের অন্যতম সম্ভাবনাময় ব্যবসায়িক খাত হিসেবে গন্য করা হয়ে থাকে ,। অথচ, সরকারি – বেসরকারি প্রভাব শালি ব্যাক্তিদের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় – সম্ভাবনাময় এ খাতটি পুরোপুরি কিছু প্রতারকদের দখলে চলে গেছে। , স্টক মার্কেট ও ব্যাংকিং সেক্টরকে যেভাবে তারা লুটেপুটে খেয়েছে ঠিক একইভাবে( ই-কমার্স) ব্যাবসারও পুরো বারোটা বাজিয়ে ছেড়েছে ঐ চক্রটি। প্রাপ্ত তথ্য মতে, বেশ কিছু দিন যাবত, দেশের বিভিন্ন এলাকায় ই- কমার্স অনলাইন ব্যবসার নামে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণার অভিযোগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এধরনের বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান প্রধান কে আটক করে । যার ধারাবাহিকতায় গতকাল সন্ধ্যায় ( ৩ – অক্টোবর) আটক হয় ( এস পি সি) ওয়ার্ড এক্সপ্রেস কোম্পানির সিও আল আমিন প্রধান। সারা দেশে এই কোম্পানির কয়েক লক্ষ গ্রাহক রয়েছে বলে জানা যায় । প্রায় ৬/৭ মাস যাবত কোম্পানি টি তাদের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী গ্রহকদের কোন প্রকার ইনকাম দিচ্ছে না। যে কারণে সাধারণ গ্রাহকদের মাঝে একপ্রকার চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছিল। এবিষয়ে, কথা হয়, আব্দুল কুদ্দুস, অলিদ হোসেন, রেজওয়ান আহমেদ, আলমগীর হোসেন, আবু সাঈদ, সহ ই- কমার্স কোম্পানি ( এসপিসি) র যশোর অঞ্চলের সাথে যুক্ত বেশ কয়েকজন গ্রাহকদের সাথে। তাদের অভিযোগ, এধরণের প্রতিষ্ঠান গুলোর প্রতি শুরু থেকে সরকারের কঠোর নজরদারি ও প্রশাসনিক চাপের মুখে রাখলে তারা সহজে সাধারন মানুষের সাথে প্রতারণা করতে পারতো না। ফলে প্রযুক্তি তথা ইন্টারনেট ব্যবহার করে ঘরে বসে বেকার ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের উপার্জন করার মাধ্যেমটি বিশ্বাস যোগ্যতা পেত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন সমাজ সচেতন ব্যাক্তি বলেন,

কোন রকম জবাবদিহিতার প্রয়োজনীয়তা না থাকায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান গুলো শত শত কোটি টাকা বিভিন্ন সরকারী – বেসরকারি অনুষ্ঠানে স্পনসর করার নামে খরচ করেছে, আর এখন বলছে তাদের কাছে কোন টাকা নেই । এখান থেকে প্রমান পাওয়া যায়, যে – গ্রহকদের টাকা তারা বেহিসাবি ব্যায় করেছে। তারা বলেন,
যে সব প্রতিষ্ঠানের এত সমস্যা, তবে কেন তাহলে এদের সাথে বিভিন্ন মন্ত্রনালয়, মন্ত্রী, আমলা, রাষ্ট্রদূতেরা, তারকারা সংশ্লিষ্ট হলেন?
এস পি সি, রিং আইডি, ইভ্যালি, ই–অরেঞ্জ, ধামাকা শপিং, কিউকম, এরা প্রত্যেকেই কোন না কোনভাবে সরকারি – বেসরকারি প্রভাবশালী ব্যাক্তিদের মদদে সাধারন মানুষের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে আর এখন বলছে টাকা নেই একথা মানতে নারাজ ক্ষতি গ্রস্থ্য গ্রাহক গনও। কিছু দিন আগেও পুলিশের দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত একজন ওসি , একটি( ই- কমার্স) কোম্পানির কয়েক শত কোটি টাকা আত্মাসাত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ভারতে আটক হয় , এমন যদি হয়,
তাহলে সাধারণ মানুষ গুলো তাদের কষ্টার্জিত টাকাগুলো হারিয়ে দেউলিয়া হয়ে পড়বে। এবিষয়ে , সাধারণ ক্ষতি গ্রস্থ্য গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে তাদের

কষ্টার্জিত অর্থ ফেরত পাইয়ে দিতে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কার্যকর পদক্ষেপে গ্রহণ করার জন্য জোর দাবি জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট মহল এবং ক্ষতি গ্রস্থ্য গ্রাহকগন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com