বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
গাছে গাছে আমের মুকুল, মৌ মৌ ঘ্রাণে ব্যকুল মানুষ। কালের খবর নির্মাণ শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানাল ইনসাব। কালের খবর ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪। কালের খবর মুরাদনগরে কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শনে মার্কিন দূতাবাস প্রতিনিধি। কালের খবর কুষ্টিয়ায় বাজার থেকে ক্রয় করা মাংসে মিলল পুরুষাঙ্গ ! কালের খবর চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর চোর চক্রের তিন সদস্য আটক দুটি মটরসাইকেল উদ্ধার কালের খবর টেকনাফে লক্ষাধিক ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক। কালের খবর একুশের বই মেলায় রাজু আহমেদ মোবারকের ‘সত্য সুন্দরের সন্ধানে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন। কালের খবর
নবীনগর সদর বাজারের ময়লায় দূষণ হচ্ছে পরিবেশ দখল হচ্ছে তিতাস নদী! কালের খবর

নবীনগর সদর বাজারের ময়লায় দূষণ হচ্ছে পরিবেশ দখল হচ্ছে তিতাস নদী! কালের খবর

মোঃ বাবুল, নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি, কালের খবর : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর সদর বাজারের তিতাস নদীর পাড় ঘেঁষে প্রতিনিয়ত ফেলা হচ্ছে বাজারের দোকানের বেশিরভাগ বর্জ্য।এতে দূষন হচ্ছে পরিবেশ আর দখল হচ্ছে নদীর পাড়।

এভাবে দিনের পর দিন দখল ও দূষণে মৃতপ্রায় এক সময়ের খরস্রোতা তিতাস নদী। প্রতিনিয়ত এসব বর্জ্য ফেলায় বিলীন হয়ে যাচ্ছে তিতাস নদীর শাখা নদী হিসেবে পরিচিত বুড়ি নদীটিও ।

স্থানীয়রা জানান, এসব বর্জ্য নদীর পাড়ে ফেলায় দূষণের শিকার হচ্ছে আমাদের প্রিয় তিতাস নদী। অনেক প্রতিবাদ করেছি তারপরেও থামানো যাচ্ছে না প্রিয় নদীর দখল ও দূষণ।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নবীনগর পৌরসভার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদী গুলোর মধ্যে তিতাস ও বুড়ি নদী অন্যতম। সেই তিতাস ও বুড়ি নদীকে কেন্দ্র করেই গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়ীক স্থান হিসেবে গড়ে উঠেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেরার পৌর সদরের এই জায়গাটি।
প্রতিদিন নিয়ম করেই নবীনগর সদর বাজারের ফল ব্যবসায়ী,হোটেল ব্যবসায়ী,মুদি ব্যবসায়ীরা, বসত বাড়ি ময়লা বোঝাই করে দূষিত বর্জ্য ফেলছেন তিতাস ও বুড়ি নদীতে। এই নদীর পারে ময়লা ফেরার কারনে নদী ভরাট হয়ে নদীর পাড় ঘিরে গড়ে উঠছে নতুন নতুন অবৈধ দখলের স্থাপনা।
এভাবে দখল আর দুষণ হলে এক সময় তিতাস ও বুড়ি নদীর অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যাবে না। শুধু পুস্তকেই পাওয়া যাবে তিতাস ও বুড়ি নদীর নাম।
দেখা যায়, নবীনগর সদর তিতাস নদীর বিস্তীর্ণ এলাকার সব ময়লা ফেলে দখল করা হয়েছে। এমন করে আরো দখলে নিতে নদীর পাড় গুলিতে প্রতিদিন ফেলা হচ্ছে এলাকার সব বর্জ্য।
এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বর্ষা মৌসুমে এক সময় যত দূর চোখ যেত এ নদীর বিস্তৃতি চোখে পড়ত। এখন নদীর পাড় ঘিরে গড়ে উঠছে অবৈধ স্থাপনা । এখন চারিদিকে তাকিয়ে দেখি শুধু দখল আর দখল। এখন ময়লা ফেলে সে দখলদারদের সুবিধে করে দিচ্ছেন নবীনগর সদর বাজারের ফল ব্যবসায়ী,হোটেল ব্যবসায়ী,বাসা বাড়ি সহ নানান অসাধু ব্যবসায়ীরা। এ ভাবে প্রতিদিন ময়লা ফেলছেন এই তিতাস নদীর পাড়ে। সেই বর্জ্য গিয়ে পড়ছে নদীতে। এখন বর্জ্যে ও প্রভাবশালীদের দাপটে এ নদীর অস্তিত্ব বিলিন হওয়ার পথে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীনগর পৌরসভার মেয়র এড. শিব শংকর দাশ বলেন,তিতাস নদীর পাড় পরিচ্ছন্ন রাখতে আমাদের পৌরসভার পক্ষ থেকে নদীর পারের বিভিন্ন পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। যে জায়গা গুলিতে সিসি ক্যামেরা নেই বাজারের কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা সেখানে ময়লা ফেলছেন প্রতিনিয়ত। দখলদাররা নদীর পাড় দখল করে সুবিধা করতে পারবেন না,অল্প কিছু দিন পরেই নদীর পাড় দিয়ে সড়ক তৈরী হবে। তিতাস নদী সুরক্ষায় নবীনগর পৌরসভা কাজ করছে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com