শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
বেগুনী রঙের ধান চাষ করে সফল কৃষক এনামুল। কালের খবর

বেগুনী রঙের ধান চাষ করে সফল কৃষক এনামুল। কালের খবর

গাজীপুর থেকে আবদুল লতিফ, কালের খবর :
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ধান চাষে ভিন্নতা এনেছেন এক কৃষক এনামুল । সবুজ পাতা নয়, বেগুনি পাতায় মোড়া পুরো ধানের ক্ষেত। এতে ব্যাপক সাড়া পড়েছে স্থানীয়দের মাঝে। চারপাশে সবুজ ধানের সমারোহ। মাঝখানে বেগুনি রঙের পাতার ধান ক্ষেত। প্রথমবারের মতো এ ধান চাষ করে সফল হয়েছেন কৃষক এনামুল।

উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের বেকাশাহরা (টেংরা) গ্রামের আবদুল আউয়ালের ছেলে। মাওনা- বরমী আঞ্চলিক সড়কের পাশের মাঠে এ ধান চাষ করেছেন। ইতোমধ্যে তার জমির ধান কাটার সময় কাছাকাছি চলে এসেছে। ফলনও বেশ ভালো হয়েছে। এতে খুব খুশি হয়েছেন তিনি।

এনামুল বলেন, ইউটিউবে বেগুনি রংয়ের ধান দেখে উৎসাহ জাগে ধান রোপন করার জন্য পরবর্তীতে উপজেলা সহকারী কৃষি অফিসার সারোয়ার হোসেন এর কাছ থেকে ৫ কেজি ধানের বীজ সংগ্রহ করেন। পরবর্তীতে আদর্শ বীজতলা তৈরি করেন। ১ একর (৩ বিঘা) জমিতে ধান গাছের চারা রোপণ করেন। রোপণের ১৪৫-১৫৫ দিনের মধ্যে এ ধান কাটার উপযোগী হয়ে যায়। পূর্ণ বয়সে ধান গাছের কাণ্ড ও পাতা বেগুনি রং ধারণ করে।’ বেগুনি রঙের ধান দেখে মানুষের মধ্যে বাড়তি কৌতূহল সৃষ্টি হয়। তারা নানা ভাবে জানতে চেষ্টা করেন ধান সম্পর্কে।

তিনি জানান, দ্রুত ফলন হওয়ায় এ জাতের ধানে রোগ বা পোকা-মাকড়ের আক্রমণ হয় না। গাছ শক্ত হওয়ায় ঝড়-বৃষ্টিতেও হেলে পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

শ্রীপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে যোগাযোগ করলে জানা যায়, ‘বেগুনি রঙের ধান বিদেশি জাত নয়। দেশীয় শুক্রাণু প্রাণরস থেকে উৎপাদিত। এপি উফশি জাতের ধান। একর প্রতি ফলন ও পুষ্টিগুণ অন্য ধানের মতই। তবে বিভিন্ন অঞ্চলে এ ধান নানা নামে পরিচিত। বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন দেখতে আসে এনামুলের বেগুনী রঙের ধানক্ষেত।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com