শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহারের নিয়ন্ত্রণে কুমিল্লার রাজনীতি। কালের খবর ব্রয়লারের চেয়ে চাহিদা বেশি বাউ মুরগির, খুশি খামারিরা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় শান্তি স্থাপন ও সহিংসতা নিরসনে (PFG) কমিটি গঠন”। কালের খবর গাছে গাছে আমের মুকুল, মৌ মৌ ঘ্রাণে ব্যকুল মানুষ। কালের খবর নির্মাণ শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানাল ইনসাব। কালের খবর ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪। কালের খবর মুরাদনগরে কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শনে মার্কিন দূতাবাস প্রতিনিধি। কালের খবর কুষ্টিয়ায় বাজার থেকে ক্রয় করা মাংসে মিলল পুরুষাঙ্গ ! কালের খবর চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর
পাটুরিয়াঘাটে পরিবহণ ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। কালের খবর

পাটুরিয়াঘাটে পরিবহণ ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। কালের খবর

 পাটুরিয়াঘাটে পরিবহণ ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্যের অভিযোগ যাত্রীদের। পাটুরিয়াঘাট থেকে গাবতলী পর্যন্ত ১০০ টাকা ভাড়ার স্থলে ২০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, প্রতিটা পরিবহণ থেকে পার্কিং চার্জ ও গাড়িতে যাত্রী উঠানোর নামে চালকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত দেড় হাজার টাকা করে নেওয়া হচ্ছে।

প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় জসিম উদ্দিন ও সুমন খানসহ আরও কয়েকজন এই অবৈধ টাকা উত্তোলন করছেন বলে ভুক্তভোগী পরিবহণ চালকরা অভিযোগ করেছেন।

তিন দিনের ছুটি শেষে রোববার দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন স্থানে কর্মস্থলে ফিরতে পাটুরিয়া ফেরিঘাটে ভিড় করেন।

অতিরিক্ত যাত্রী থাকার সুযোগে বাসচালক ও মালিকরা নির্ধারিতের চেয়ে এই অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছেন। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জসিম উদ্দিন। তিনি বলেন, বাসচালক ও সহকারীরাই বেশি ভাড়া নিয়েছেন।

ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার পাটুরিয়াঘাট এলাকায় কয়েকটি বাসচালক ও মালিক যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেন। অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার অভিযোগে কয়েকজন চালককে আটক করা হয়। অতিরিক্ত ভাড়া না নেওয়ার শর্তে পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

রোববার  বিকালে পাটুরিয়াঘাটে গিয়ে দেখা যায়, দৌলতদিয়াঘাট থেকে লঞ্চ ও ফেরিতে হাজারও যাত্রী পাটুরিয়াঘাটে আসছেন। সেখান থেকে বাসে ওঠার জন্য চালক ও সহকারীদের সঙ্গে ভাড়া ঠিক করছেন। পাটুরিয়া থেকে ঢাকার গাবতলী পর্যন্ত সরকার নির্ধারিত ১০০ টাকার জায়গায় ২০০ টাকা ভাড়া ডেকে নিয়ে বাসে যাত্রী তুলছেন চালকের সহকারীরা।

তবে ট্রাফিক পুলিশ বাসের কাছে গেলে সহকারীরা সরে গিয়ে গোপনে অতিরিক্ত ভাড়া চূড়ান্ত করে যাত্রীদের বাসে তুলছেন। এভাবে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হয়।

বিআরটিসির বাস ছাড়াও স্থানীয় সেলফি, নিলাচল, দ্রুতগতি পদ্মা লাইন, যাত্রীসেবা, শুভযাত্রাসহ বিভিন্ন পরিবহনের বাস পাটুরিয়া থেকে ঢাকায় যাত্রী বহন করছে। বিআরটিসি বাসেও ভাড়া বেশি নেওয়ায় সন্ধ্যায় এক চালককে আটক করা হয়।

ঘাটসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সাপ্তাহিক সরকারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ছুটিসহ তিন দিনের ছুটিতে অসংখ্য মানুষ গ্রামের বাড়িতে যান। ছুটি শেষে ঢাকা ও এর আশপাশে বিভিন্ন এলাকায় কর্মস্থলে যেতে রোববার দুপুরের পর থেকে দৌলতদিয়া থেকে লঞ্চ ও ফেরিতে করে পাটুরিয়াঘাটে আসেন। সেখানে যাত্রীর চাপ বেড়ে গেলে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হয়।

চুয়াডাঙ্গা থেকে আসা ঢাকার সাভারের আশুলিয়ায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন আব্দুল কাদের। তিনি জানালেন স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে পাটুরিয়া থেকে সেলফি পরিবহণের একটি বাসে ওঠেন।

ভাড়ার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের তিনজনের ভাড়া ৬০০ টাকা গুনতে হয়েছে।

পাটুরিয়াঘাটে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক জাসেল আহমেদ বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া যাতে কেউ না নিতে পারেন, সে জন্য বাসচালক ও সহকারীদের সতর্ক করা হয়েছে। এর পরও কোনো কোনো বাসচালক ও সহকারী যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com